ঘরে বসে বন্ধুদের সাথে সময় কাটানোর অদ্ভুত সুন্দর একটা উপায়

2

সারা পৃথিবী লকডাউনে যখন অলস সময় কাটাচ্ছিল তখন বাংলাদেশের একদল তরুণ তরুণী- এমন সুন্দর ইউটিউব বা ফেসবুকে অযথা সময় নষ্ট না করে মেধাবিকাশের এবং একই সাথে বন্ধুদের সাথে সময় কাটানোর অদ্ভুত সুন্দর একটা উপায় বের করে ফেললো। আর সেটা হলো অনলাইন ডিবেট।

আর এই অনলাইন ডিবেটের সেরা বক্তাদের একজন বগুরার মেয়ে নুসরাত জাহান সিয়াম এর অনলাইন সাক্ষাৎকার থেকে আমরা যা জেনেছি আমরা তা তুলে ধরছি সকল কিশোর-কিশোরী, তরুণ-তরুণী এবং ঘরে বসে থাকা যুব সম্প্রদায়দের জন্যে। এছারা ফেসবুকে অনেক গ্রুপ আছে যারা ছোটবেলার বন্ধুত্বকে টিকিয়ে রাখতে এস, এস ,সি- পরীক্ষার সাল অনুযায়ী নিজেদের নামকরণ করেছে।তারাও এই অলস সময়ে ক্রিকেট, ফুটবলের মতো সবাই সবার ঘরে বসে এমন মজার খেলায় মেতে উঠতে পারো আর নিজের দেশ ও নিজের আপনদেরকে রাখতে পারো করোনা মুক্ত ও সুস্থ।

প্রত্যহ সকালবেলা ডেস্কঃ আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন নুসরাত।
নুসরাত জাহান সিয়ামঃ ওলাইকুম আসসালাম।জি আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছি।

প্রঃসঃডেঃ- অধুনা শেষ হয়ে যাওয়া তোমাদের এই অনলাইন ডিবেট সম্পর্কে কিছু বলো।
নুঃজাঃসিঃ-  অনলাইন ডিবেট আসলেই নতুন একটা জিনিস আমাদের অনেকের কাছে৷ আমরা একটা  অর্গানাইজেশন এর সাথে আছি। সেটা হলো “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh)।  এই অর্গানাইজেশনটা ইয়াং ইয়ুথদের নিয়ে কাজ করে। আমি ওদের সাথে জড়িত। আর আমি আমার ক্যাম্পাসের শিক্ষাঙ্গন প্রতিনিধি [“ক্যাম্পাস এম্বাসেডর” (Campus Ambassador)]। তো এই কোয়ারান্টাইনে সবাই বোর হচ্ছিল। এজন্য এই সময়টাকে একটু মজার করার জন্য অনলাইন ডিবেটের আয়োজন করা।

প্রঃসঃডেঃ- অনলাইন ডিবেটের উদ্যোগ নিয়েছিলো কে ?

নুঃজাঃসিঃ- এর উদ্যোগ নিয়েছিলো “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh) এর সহকারী পরিচালক ইসতিয়াক আহমেদ

প্রঃসঃডেঃ- কতজন শুরু করেছিলে আর কতজন অংশগ্রহণ করেছিল তোমাদের ডিবেটে।

নুঃজাঃসিঃ- আমরা এখানে ৮টা দল অংশগ্রহণ করি। প্রতি দলে ৩জন করে মেম্বার ছিলো। টোটাল ২৪ জন।

প্রঃসঃডেঃ- ফলাফল কেমন ছিল?

নুঃজাঃসিঃ- কোয়ার্টার ফাইনাল ৮.০৪.২০২০ অনুস্টীত হয়।এতে টিম ইঃ৯৫.৫ এবং টিম ডিঃ ৯৭.৫ পেয়ে সেমি ফাইনালে যায়।বাকি গুলোর মার্কস মনে নেই।এবং আমি ২৭.৭৬ পেয়ে সেরা বক্তা হিসেবে মনোনীত হই।

প্রঃসঃডেঃ- আর সেমি ফাইনাল?

নুঃজাঃসিঃ- সেমি ফাইনাল ১০.০৪.২০২০ অনুস্টীত হয়।এতে এভারেজ টিম ইঃ৯৮.৫ এবং টিম ডিঃ ১০০.৫ পেয়ে ফাইনালে যায়।নেই।এবং কৌশিক তৌহিদ স্বচ্ছ ৩৪.৪৫ পেয়ে সেরা বক্তা হিসেবে মনোনীত হয়।

প্রঃসঃডেঃ- আর ফাইনাল?

নুঃজাঃসিঃ- ১ম অনলাইন বিতর্ক প্রতিযোগিতা ফাইনাল রাউন্ড ১১.০৪.২০২০ হয়।  টিম ডিঃ পক্ষ- ১০৬.৬৬ (বিজয়ী) টিম এফঃ- বিপক্ষ- ১০২
শ্রেষ্ঠ বক্তা- জারিন তাসনিম- ৩২.৩৩
বিজয়ী টিম ও রানার্স-আপ টিমের প্রত্যেক বিতার্কিক পুরষ্কার হিসেবে আকর্ষণীয় মোবাইল রিচার্জ পান।
এছাড়া প্রত্যেক বিতার্কিককে অনলাইন সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। এখানে বিচারক হিসাবে ছিলেন- “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh) এর
নির্বাহী পরিচালক মশিউর রহমান শাফী ভাইয়া, নির্বাহী পরিচালক তাসিন আল রাফিদ ভাইয়া, Assistant Director কৌশিক সরকার ভাইয়া। যারা অনলাইনের মাধ্যমেই মার্কস সাবমিট করে আমাদের বিচার করেছেন। আর এখানে মডারেটর হিসাবে ছিলেন সহকারী পরিচালক ইসতিয়াক আহমেদ। আর অনলাইন ডিবেট টি “Discord” এ্যাপস এর মাধ্যমে “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh) এর সার্ভারে অনুষ্ঠিত হয়। “Discord” এর মাধ্যমে অনলাইন বিতর্ক প্রতিযোগিতা বগুড়ায় এটিই প্রথম, এবং “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh) সেটা করে ,
সেখানে অংশগ্রহণকারী , বিচারক ও নিয়ন্ত্রক ছাড়াও “এক্টিভ বাংলাদেশ” (Active Bangladesh) এর সকল শিক্ষাঙ্গন প্রতিনিধিরা উক্ত সময়ে উপস্থিত ছিলেন।“এক্টিভ বাংলাদেশ” থেকে উত্তরবঙ্গের রাজধানী বগুড়াতে ১৪ এবং ১৫ এপ্রিলে North Bangle Active Youth Congress-2020 ইভেন্ট হওয়ার কথা ছিলো। তবে করনার জন্য স্থগিত করা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ইভেন্ট টি আয়োজন আমরা করবো।