আগামী শিক্ষাবর্ষের জন্য ছাপা হবে ৩৫ কোটি বই

3

আগামী শিক্ষাবর্ষের জন্য বিনামূল্যের ৩৫ কোটি বই ছাপানো হবে। করোনার কারণে বই ছাপানোর প্রক্রিয়া শুরুতে কিছুটা দেরি হলেও চলতি মাসেই দরপত্র আহ্বান শুরু করছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড। আগস্ট মাস থেকে ছাপার কাজ শুরুর লক্ষ্য নিয়েছে বোর্ড।

২০১০ সাল থেকে বছরের প্রথম দিন পাঠ্যপুস্তক উৎসব করে বিনামূল্যের বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিচ্ছে সরকার। চলতি বছর করোনার কারণে গত ১৮ মার্চ থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। এ অবস্থায় শিক্ষাবর্ষ কিভাবে শেষ হবে সেটি নিয়েও দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

সেই সাথে আগামী শিক্ষাবর্ষের বই ছাপানোর কাজেও এর প্রভাব পড়তে পারে বলছে সংশ্লিষ্টরা। তবে এনসিটিবি জানিয়েছে, এ অবস্থা কাটাতে দরপত্রের অনেকাংশের কাজ অনলাইনে শেষ করা হবে। মঙ্গলবার থেকে মাধ্যমিক পর্যায়ের বইয়ের কাগজের দরপত্র আহ্বান করেছে তারা। সেই সাথে প্রাথমিকের দরপত্র আহ্বান করা হবে ১৪ জুন।

এবার প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ৩৫ কোটি বই ছাপানো হবে। এর জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১১শ কোটি টাকা।

মুদ্রণ মালিক সমিতি জানায়, তাদের আগের কাজের বিল এখনও দেয়া হয়নি। সেটি না পেলে নতুন বই ছাপার কাজ করতে পারবে না তারা।

আগের বিল পরিশোধ করার কাজ চলছে বলেও জানিয়েছে এনসিটিবি।